টিপন্নী

উঠলে ভোটের হাওয়া উঠলে ভোটের হাওয়া বন্ধ নাওয়া খাওয়া- প্রার্থী ছোটে বাড়ি বাড়ি লাগে না তার মোটরগাড়ি এঘর ওঘর সকাল-বিকেল করে আসা-যাওয়া। উঠলে ভোটের হাওয়া মিছিল মিটিং ধাওয়া হয় শুরু রোজ পাড়ায় পাড়ায় নেতা এসে দু’হাত নাড়ায় ঘুরে বেড়ায় দ্বারে দ্বারে কেবলই ভোট চাওয়া। উঠলে ভোটের হাওয়া হয় শুরু গান গাওয়া প্রার্থী লাগায় কোলাকুলি চা পান বিড়ির ঝোলাঝুলি কিন্তু তাকে জেতার পরে যায় না খুঁজে পাওয়া। সূত্র: (সংসদ...

টিপন্নী

উচিৎ বিচার করুন এতে কিসের ধক- প্রেসক্রিপশন করেন যদি ভুয়া চিকিৎসক? তাতে কি যায় আসে? প্রশ্ন শুনে সব মানুষই দাঁত কেলিয়ে হাসে। স্বাস্থ্য মানেই জীবন মরণ স্বাস্থ্য মনেই জান, তাই যদি হয় ব্যাপারখানা এড়িয়ে ক্যান যান? আরে না রে না রে; ডাক্তার নন তাতে কি তার কাটে অনেক ভারে। বাঁচান রোগী, তাড়াতাড়ি ধরুন তাকে ধরুন; উচিৎ বিচার করুন। সূত্র:(আলমডাঙ্গায় ভুয়া ডাক্তারকে জরিমানা)

টিপন্নী

জব্দ হবেই ওরা জ্বালায় ঘরে আগুন মানুষ ধরে পোড়ায়, আগায় ধরে লাভ কী হবে দোষ রয়েছে গোড়ায়। খেলতামাশা ভালোই জানে চাবুক মারে ঘোড়ায়, হাওয়ায় ভাসে নিজে এবং বাতাসে কল ওড়ায়। সব কিছুকেই হালকা ভাবে কেয়ার করে থোড়ায়, শত্রু মারে কায়দা রকম ডবল পাটা নোড়ায়। আজ এখানে কাল ওখানে চলে জোড়ায় জোড়ায়, দুই পা ভালো তবু তারা ঠাট্টা করে খোঁড়ায়। কাজ হবে না ওদের গায়ে কামড় দিলে ঢোঁড়ায়, জব্দ...

টিপ্পনি : বাংলা করো শেষ

বাঙালি রে বাঙালি পান্তাভাতের কাঙালি টাক ডুমা ডুম বাজিয়ে ঢোল পয়লা বোশেখ রাঙালি; এক পোয়াটেক ইলিশ কিনে সবাই মিলে গিলিস কিনে ইলিশ কিনে হাজার টাকার কয়খানা নোট ভাঙালি? মারিংকাটিং টাকার পাহাড় ইলিশ কেনে সে আজ, আমরা হলা, খাঁটি জিনিস খাবো মরিচ-পেঁয়াজ। একদিনই খুব ভাব ফুটানি বাঙালি হও বেশ, পয়লা বোশেখ যেই পেরুবে বাংলা করো শেষ।

টিপন্নী

সেদিন গোজারগিয়া পড়লে কবে বিয়ের কবুল তালাক কবে তার করলে ক’দিন পিরিত খেলা তিনমেসে সংসার। মগের মুলুক বাপের তালুক সাজলে ক’দিন হস্তি ভালুক হেইয়ো দিলে টান; গোঁজের গোড়ায় এবার ঠিকই পড়েছো ইমরান। আন্দোলনের উসকানি দাও করাও জ্বালাও পোড়াও সামনে তোমার দিব্যি খাঁড়া শক্ত ঝেলো নোড়াও। যাহার পাটা যাহার নোড়া ভাঙবা তাহার দাঁতের গোড়া সাজবা সাহেব মিয়া; খুব করেছো বাহাদুরি সেদিন গোজার গিয়া। সূত্র: (শিক্ষামন্ত্রীর মেয়ের সঙ্গে ইমরান এইচ...

টিপন্নী

এবার ফাঁকি দিলে একটু বাতাস দেখেই বাতি মুখ করেছে ভার, এত্ত তেলাই অত্ত তেলাই জ্বলছে না তাও আর। মেঘ দেখে তার পরান কাঁপে বিদেশ পালায় নি¤œচাপে যেই না ওঠে ঝড়, ওই বিদ্যুত মরে ভয়ে বুক করে ধড়ফড়। কোন জগতে পালায় গিয়ে পাইনে খুঁজে তাকে একটু গরম একটু হাওয়া উঠলে তাকে যায় না পাওয়া গুপ্ত হয়ে থাকে। তুই বিদ্যুত বিরাট পাজি জানিস ব্যাটা কী কারসাজি নিস তো...

টিপন্নী

অপরাধে জড়াও এসব কথা শুনলে সবার লজ্জাতে মুখ নীল হয়, শুনছি কানে যেসব বাবা তাল কখনো তিল হয়? তোমরা নাকি যা করো তা নিছক শুধু বাতিকে তাই যদি হয় আর কতকাল লজ্জা দেবেন জাতিকে? লেখাপড়া করো না কেউ পাঠদানও কেউ করাও না ঘেন্নাধরা এমন বিষয় সামনে থেকে সরাও না। খুব মিনতি করি বাবা বই পড়ো আর পড়াও মিথ্যে কেন দফায় দফায় অপরাধে জড়াও! সূত্র: (শৈলকুপায় এইচএসসি...

টিপন্নী

আঙুল ফোলা আমরা সবাই জানি খাল কেটে কেউ কুমির আনেন কেউ বা আনেন পানি; এসব নিয়েই গহেরপুরে চলছে কানাকানি। কার স্বার্থে কে খাল কাটে ফসলফলা মধ্যি মাঠে যায় না বোঝা পষ্ট, এতে কারো তবিল ফোলে চাষিরা পায় কষ্ট। এসব নাকি টাকার খেলা টাকা জোগায় কারা, আড়াল থেকে ভোগিজোগির নকশা বানায় যারা। এইভাবে হয় রাতারাতি আঙুল ফোলার তেলেসমাতি। সূত্র: (চুয়াডাঙ্গার গহেরপুরের খাল খনন কার স্বার্থে)

টিপন্নী

ঝুলিবেন আগুন নিয়ে খেলতে গেলেই দিব্যি পুড়ে মরিবেন, বিপদ এসে করলে তাড়া তখন যে কী করিবেন। তাই তো বলি বুঝে সুজেই অগ্নি খেলা খেলিবেন, হিসাব নিকাশ করেই তবে সামনে দু’পা ফেলিবেন। অন্ধকারে না গিয়ে তাই আলোর পথে চলিবেন, জঙ্গিবাদের পথটা ছেড়ে সত্যি কথা বলিবেন। আসল কথা শুনে রাখুন নীতিই যদি ভুলিবেন, আটক হয়ে বিচার শেষে ফাঁসির কাষ্ঠে ঝুলিবেন। সূত্র: (নব্য জেএমবির ব্যাট উইমেনের প্রধান গ্রেফতার)

টিপন্নী

ক্ষমা করে দিয়ো মা গর্ভধারিণী মাকে নিয়ে যায় বিসিএস এক ছেলে, অবশেষে তাকে আড়কোলা করে দেয় দূরে ছুড়ে ফেলে। বৌ’র কথা শুনে ছেলে কোনোদিন কখনো এ কাজ করে, ঘটনা শুনেই সব মানুষের দুই চোখে জল ঝরে। নিদারুণ এই করুণ কাহিনি বুকে বুকে ব্যথা তোলে, যেই ছেলেটাকে জননী কত না রেখেছিলে বুকে-কোলে। সেই জননীর এই দুর্দশা সহ্য তো হয় না, সব বাঙালির তরফে আমায় ক্ষমা করে...