বয়ে যাচ্ছে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ : থাকবে আরও দু’দিন

0
sdr

চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গায় পুলিশ প্রশাসনের উদ্যোগে কম্বল বিতরণ
স্টাফ রিপোর্টার: দেশের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে বয়ে যাওয়া মৃদু থেকে মাঝারি শৈত্যপ্রবাহ আরও দু’দিন অব্যাহত থাকতে পারে। গতকাল সোমবার দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৭ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস তেতুলিয়ায় রেকর্ড করা হয়েছে। চুয়াডাঙ্গায় সর্বনি¤œ তাপমাত্রা ৮ দশমিক ২ ডিগ্রি এবং সর্বোচ্চ ২৩ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়। ঢাকায় সর্বনি¤œ ১২ দশমিক ১ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং সর্বোচ্চ ২৩ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা জয়। এদিকে গতকাল সোমবার বিকেলে চুয়াডাঙ্গা জেলা পুলিশের উদ্যোগে আলমডাঙ্গায় অসহায় ও দরিদ্রদের মাঝে কম্বল বিতরণ করা হয়েছে।
আবহাওয়াবিদ আফতাব উদ্দিন জানান, রংপুর বিভাগে বয়ে যাওয়া শৈত্যপ্রবাহ আরও দু’দিন স্থায়ী হতে পারে। সকালে তেতুলিয়ায় ৭ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়। এ সময়ে ঢাকায় ছিলো ১২ দশমিক ১ ডিগ্রি সেলসিয়াস। তবে রোববার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৩ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়। রংপুর বিভাগে তাপমাত্রা ১০ এর নিচে রয়েছে। এছাড়াও কয়েক অঞ্চলে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে। তিনি আরও বলেন, বিভিন্ন জায়গায় বয়ে যাওয়া শৈত্যপ্রবাহের কারণে রাজধানীসহ সারাদেশে শীত অনুভূত হচ্ছে। এদিকে আকাশ দু’দিন মেঘে ঢাকা থাকার পর সকাল থেকে সূর্যের দেখা মিলেছে। এতে অনেকের মধ্যে স্বস্তির ভাব দেখা গেছে।
আবহাওয়াবিদ ওমর ফারুক জানান, আগামী ১৫ জানুয়ারি থেকে বিরাজমান পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হবে এবং তাপমাত্রা বৃদ্ধি পেতে থাকবে, পরবর্তী ৪/৫ দিন তা অব্যাহত থাকতে পারে।
আবহাওয়া অধিদফতর জানায়, সারাদেশে দিন এবং রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে। মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত মাঝারী থেকে ঘন কুয়াশা পড়তে পারে। আগামী ৭২ ঘণ্টার শেষের দিকে তাপমাত্রা বৃদ্ধি পেতে পারে। আবহাওয়ার সংক্ষিপ্তসারে বলা হয়, উপমহাদেশীয় উচ্চচাপ বলয়ের বর্ধিতাংশ বাংলাদেশের পশ্চিমাঞ্চল ও তৎসংগ্ন এলাকা পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। মৌসুমের স্বাভাবিক লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে।
আলমডাঙ্গা ব্যুরো জানিয়েছে, আলমডাঙ্গায় হতদরিদ্র ৫শ’ শীতার্তের মাঝে উষ্ণতা ছড়ালেন পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম। গতকাল সোমবার বিকেলে আলমডাঙ্গা থানা চত্বরে আনুষ্ঠানিকভাবে তিনি ৫শ’ শীতার্ত নারী-পুরুষের হাতে কম্বল তুলে দেন। এসময় বক্তব্যে পুলিশ সুপার বলেন, স্কুল-কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শিক্ষা অর্জন করে সমাজ থেকে আমি সুবিধা ভোগ করেছি। আমার উচিৎ সমাজকে কিছু দেয়া। এই প্রকৃতি থেকে অক্সিজেন নিয়ে বেঁচে আছি। আলো বাতাস নিচ্ছি। আমার মতো আপনারাও সমাজ থেকে সুবিধা ভোগ করেছেন। তাই আপনাদেরও উচিত সমাজকে কিছু দেয়া। সমাজের মানুষের জন্য কিছু করা। তিনি আরও বলেন, বঙ্গবন্ধু ছিলেন বিশাল হৃদয়ের অধিকারি। স্বদেশ প্রত্যাবর্তনকালে তার সাথে ছিলেন ভারতের রাষ্ট্রদূত শশাঙ্ক শেখর। তিনি বলেন, ১৩ ঘন্টার ভ্রমণে বঙ্গবন্ধু একবারও পরিবারের কথা চিন্তা করেন নাই, চিন্তা করেছেন দেশ কেমন আছে, দেশের মানুষ কেমন আছে? বঙ্গবন্ধুর সেই সোনার বাংলার স্বপ্ন সফল হতে করতে হবে। হতদরিদ্র মানুষের জীবনমানের উন্নয়ন ঘটাতে হবে। তাদেরকে সমাজের মূলস্রোতে ফিরে আসবে। তাহলে মুক্তিযুদ্ধের লক্ষ্য বাস্তবায়ন হবে। কারণ মুক্তিযুদ্ধের সাথে বাংলাদেশ পুলিশের সম্পর্ক নিবিড়। আলমডাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ সৈয়দ আশিকুর রহমানের সভাপতিত্বে ওই শীতবস্ত্র প্রদান অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কলিম উদ্দীন, আলমডাঙ্গা প্রেসক্লাবের সভাপতি শাহ আলম মন্টু, সম্পাদক হামিদুল ইসলাম আজম, আলমডাঙ্গা বণিক সমিতির সভাপতি হাজি মীর শফিকুল ইসলাম, আল ইকরা ক্যাডেট একাডেমির অধ্যক্ষ এনামুল হক ও পুলিশ পরিদর্শক গাজী শামীমুর রহমান।

আশুলিয়ায় জঙ্গি আস্তানা থেকে
নারী আটক : বিস্ফোরক উদ্ধার
স্টাফ রিপোর্টার: ঢাকার আশুলিয়ার একটি বাড়ি থেকে জঙ্গি সন্দেহে এক নারীকে গ্রেফতার করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। ওই বাড়ি থেকে পেট্রোল বোমা ও বিস্ফোরকসহ নানা সরঞ্জাম উদ্ধারও করা হয়। আশুলিয়া থানার ওসি রিজাউল হক বলেন, গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় গকুলনগর বাজার এলাকায় এক সৌদি আরব প্রবাসীর দুইতলা বাড়ির নিচতলার ফ্ল্যাটে এ অভিযান চালানো হয়। গ্রেফতার শায়লা রহমান শারমিনের বয়স ২৮ থেকে ৩০ বলে জানান ঢাকা জেলার পুলিশ সুপার (এসপি) মারুফ হোসেন সর্দার। গতকাল সন্ধ্যা ৬টায় শুরু হওয়া অভিযান শেষে রাত সাড়ে ৮টায় এসপি মারুফ প্রেস ব্রিফিংয়ে বলেন, নিউ জেএমবির আইটি বিভাগের প্রধান তানভীর আহমেদ বাসাটি ভাড়া নেন। তার স্ত্রী শায়লা রহমান শারমিনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তানভীরকে পাওয়া যায়নি।“ তানভীর জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের আইটি বিভাগের বর্তমান ছাত্র। তানভীরের সঙ্গে ফেইসবুকে পরিচিত হওয়ার পর সম্প্রতি তারা বিয়ে করেন। বিয়ের পর প্রথম এই বাড়িটি ভাড়া নেন বলে শারমিন জানান।” এসপি বলেন, বাড়িটি থেকে পেট্রোল বোমা, বোমা তৈরির বিভিন্ন সরঞ্জাম ও নানা ধরনের যন্ত্রপাতি উদ্ধার করা হয়েছে। এগুলো দিয়ে দূর থেকে বড় ধরনের বিস্ফোরণ ঘটানো যেতে পারে। “তবে তাদের কী পরিকল্পনা ছিলো তা জানা যায়নি। এই বাড়ি ভাড়া নেয়ার পর যারা এখানে যাতায়াত করতো তাদেরও আইনের আওতায় আনার চেষ্টা চলছে।” এসপি মারুফ জানান, বগুড়ার জেএমবির একটি মামলার সূত্র ধরে এ অভিযান চালানো হয়েছে। পুলিশের সদর দফতর থেকে তথ্য পেয়ে ঢাকা জেলা পুলিশ এ অভিযানে নামে। অভিযানে ঢাকা জেলা পুলিশের নেতৃত্বে ঢাকা উত্তরের গোয়েন্দা পুলিশ এবং র‌্যাবও ছিলো।
স্থানীয় পাথালিয়া ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ড সদস্য লেহাজ উদ্দিন বলেন, বাড়িটিতে জঙ্গি রয়েছে এমন সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে যান তিনি। তিনি বলেন, প্রায় ১০ দিন আগে স্বামী-স্ত্রী পরিচয় দিয়ে দুজন দুইতলার পুরো বাড়িটি ভাড়া নেন। বাড়িটি দেখাশোনা করেন বাড়ির মালিকের ভায়রা ভাই শাহজাহান। তিনিই ভাড়া দিয়েছিলেন।
এ ব্যাপারে কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের (সিটিটিসি) উপ-কমিশনার সাইফুল ইসলাম বলেন, জঙ্গি সন্দেহেই ওই বাড়িতে অভিযান চালানো হয়েছে। “প্রাথমিকভাবে জানা গেছে বাড়িতে এখন কোনো পুরুষ মানুষ নেই। শুধু মহিলা আছে। তাছাড়া বাড়িতে কিছু বিস্ফোরক আছে এমন তথ্যও রয়েছে।” তাদের একটি টিমও সেখানে গিয়েছে বলে তিনি জানান। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের আইটি বিভাগের ৪৭ ব্যাচের শিক্ষার্থী দীন মোহাম্মদ আশিক জানান, তানভীর আহমেদ তাদের বিভাগের ৪৬ ব্যাচের শিক্ষার্থী ছিলেন। একবার রিপিট করায় এখন তিনি ৪৭ ব্যাচের সঙ্গে দ্বিতীয় বর্ষে আছেন।