চুয়াডাঙ্গা জেলার ঐতিহ্য ব্লাক বেঙ্গল গট

0

খাইরুজ্জামান সেতু: দেশের প্রতিটি জেলায় নিজস্ব ব্র্যান্ডে পরিচিত হচ্ছে। চুয়াডাঙ্গার ব্র্যান্ড ব্লাক বেঙ্গল গট। যা ঐতিহ্যেরই অংশ। এ প্রজাতির ছাগলকে এলাকাবাসী দেশি কালো দেশি ছাগল বলেই চেনে। এ প্রজাতির খাসির মাংসের স্বাদ বিশ্ববিখ্যাত। ফলে ব্লাক বেঙ্গল গট মানেই চুয়াডাঙ্গা। এ প্রজাতির ছাগল গ্রামবাংলার ঘরে ঘরে কম বেশি পালন করা হয়। এতে এলাকার অর্থনীতিও চাঙ্গা হচ্ছে।
দেশের সীমান্তর্তী জেলা চুয়াডাঙ্গা। ঊষ্ণ আবহাওয়া হওয়ার কারণে ছাগল পালনের উপযোগী স্থান। যার কারণে জেলার প্রায় ৩ লাখ নারী-পুরুষ ছাগল পালন করে থাকেন। পরিবারভেদে পালিত ছাগলের সংখ্যা ভিন্ন। শীতকালে ঠা-াজনিত রোগ ছাড়া তেমন কোনো রোগ বালাই নেই বললেই চলে। প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তার দেয়া তথ্য মতে জেলায় ব্লাক বেঙ্গল গট, শঙ্কর, যমুনাপাড়ী, বিটল, তোতামুখি, হরিয়ানা জাতের ছাগল পালন হয়ে থাকে। এর মধ্যে সিংহভাগই পালন হয় ব্লাক বেঙ্গল গট। এই জাতের মাংস সুস্বাদু হওয়ায় দেশে ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। একটি মা ছাগল বছরে ৩ বারে ৩-৪টি বাচ্চা দেয়।
চুয়াডাঙ্গা উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা, ডা. এ এইস এম শামিমুজ্জামান বলেন, দরিদ্র কৃষক, বেকার যুবক ও যুবতীরা জীবিকা নির্বাহের পাশাপাশি জাতিকে পুষ্টি সরবরাহ করছে। জেলার ৪ উপজেলায় বছরে ৫ লাখ ছাগল পালন হয়ে থাকে। এর থেকে ২৩ হাজার মেট্রিক মাংস উৎপাদন হয়। যা থেকে আয় হয় প্রায় ২ হাজার কোটি টাকা।

Loading Facebook Comments ...

প্রত্যুত্তর দিন

অনুগ্রহ করে আপনার মন্তব্য লিখুন!
অনুগ্রহ করে আপনার নাম লিখুন