আলমডাঙ্গা কুমারীর গরু ব্যবসায়ী অজ্ঞানপার্টির খপ্পরে পড়ে হাসাদাহে

0

 

হাসাদাহ প্রতিনিধি: আলমডাঙ্গা উপজেলার কুমারী গ্রামের গরু ব্যবসায়ী আব্দুর রহিম বিশ্বাস (৪৫) অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পড়ে ৩ লাখ টাকা খুইয়েছেন। তবে তিনি ১ লাখ টাকা ফেরত পেয়েছেন। গত বৃহস্পতিবার ওই গরু ব্যবসায়ী শিয়ালমারী পশুহাটে যাওয়ার সময় বাসের মধ্যে তাকে অজ্ঞান করে ওই টাকা ছিনিয়ে নেয়া হয়। জ্ঞান হারানো অবস্থায় তাকে হাসাদাহে নামিয়ে দেয়া হলে এলাকাবাসী তার নিকট থেকে ১ লাখ টাকা উদ্ধারের পর গতকাল মঙ্গলবার তা ফেরত দেন।

জানা গেছে, আলমডাঙ্গা উপজেলার কুমারী গ্রামের মৃত রায়হান উদ্দীন বিশ্বাসের ছেলে গরু ব্যবসায়ী আব্দুর রহিম বিশ্বাস জীবননগর উপজেলার শিয়ালমারী পশুহাটে গরু কেনার জন্য বাসযোগে আসছিলেন। দুপুর ১টার দিকে ওই বাস জীবননগর পার হয়ে হাসাদাহ পৌঁছুলে বাসের কন্ট্রাক্টর আব্দুর রহিম বিশ্বাসকে সিটে অজ্ঞান অবস্থায় দেখে তাকে নামিয়ে দেন।  হাসাদাহ বাসের কলারম্যান মিলন খন্দকার তার চিকিৎসার দায়িত্ব নেন। এসময় আব্দুর রহিমের পকেট হতে ১ লাখ টাকা উদ্ধার করা হয়। সংজ্ঞাহীন আব্দুর রহিমকে জীবননগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করা হয়। পরে আব্দুর রহিম বিশ্বাসের পরিবারের লোকজনকে খবর দেয়া হয়। জ্ঞান ফিরলে আব্দুর রহিম জানান, তার নিকট ৪ লাখ টাকা ছিলো। এর মধ্যে অজ্ঞান পার্টির সদস্যরা ৩ লাখ টাকা নিয়ে গেছে।

গতকাল সকালে আব্দুর রহিম বিশ্বাসের হাতে গচ্ছিত টাকা তুলে দেয়াকালে কুমারী ইউপি চেয়ারম্যান আবু সাইদ পিন্টু, চুয়াডাঙ্গা জেলা পরিষদের সদস্য শফিকুল আলম নান্নু, কুমারী ইউনিয়ন আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক, নজরুল ইসলাম, জহিরুল ইসলাম, হাসাদাহ ইউনিয়ন আ.লীগ নেতা আলম বিশ্বাস, মাহবুব রশীদ বিশ্বাস, আবজালুর রহমান চুন্নু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Loading Facebook Comments ...

প্রত্যুত্তর দিন

অনুগ্রহ করে আপনার মন্তব্য লিখুন!
অনুগ্রহ করে আপনার নাম লিখুন