জাতীয় শ্রমিকলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্যদিয়ে পালিত

0
48

স্টাফ রির্পোটার: জাতীয় শ্রমিকলীগের ৫০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্যদিয়ে পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে গতকাল শনিবার সকালে দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। এছাড়াও চুয়াডাঙ্গা ও মেহেরপুরসহ সারাদেশে র‌্যালি ও আলোচনাসভার আয়োজন করা হয়। আলোচনাসভায় বক্তারা বলেন, জাতির জনক শেখ মুজিবুর রহমানের হাতে গড়া সংগঠন জাতীয় শ্রমিকলীগ, বর্তমানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সময়ে শ্রমিকদের বেতন ভাতা বৃদ্ধি পাচ্ছে। আমাদের সবাইকে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আর্দশ বুকে ধারণ করতে হবে। জেলা আওয়ামী লীগের সকল প্রোগ্রামে অংশগ্রহণের মাধ্যমে তা সফল করতে হবে। জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ে তুলতে আমাদের প্রিয় নেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দৃঢ প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। আজ প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে দেশব্যাপী দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে যে শুদ্ধি অভিযান শুরু হয়েছে এ অভিযানকে স্বাগতম জানানো হয়। বক্তারা বলেন, আমাদের রাজনীতি হবে নিজেদের জন্য নয় এ দেশের নিরীহ, নির্যাতিত মানুষজনের কল্যাণে, এখানে ভোগের কোনো সুযোগ নেই। আমরা আওয়ামী লীগ সরকারের উন্নয়ন কর্মকা- তৃণমূলের মানুষের কাছে পৌছে দিতে সকল নেতাকর্মীকে নিঃস্বার্থভাবে কাজ করার আহ্বান জানানো হয়।
চুয়াডাঙ্গায় গতকাল শনিবার সারা দিনব্যাপী বিভিন্ন অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত হয়। সকাল সাড়ে ৬টার দিকে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্যদিয়ে অনুষ্ঠান শুরু হয়। জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন জাতীয় শ্রমিকলীগ চুয়াডাঙ্গা জেলা শাখার সভাপতি আফজালুল হক। দলীয় পতাকা উত্তোলন করেন সাধারণ সম্পাদক রিপন ম-ল। পরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে ফুলের শুভেচ্ছা জানানো হয়। সকাল সাড়ে ১০টার দিকে দলীয় কার্যালয় থেকে এক বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে দলীয় কার্যালয়ে এসে শেষ হয়। এসময় সেখানে সংক্ষিপ্ত সবাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে জেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি আফজালুল হকের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক সাবেক পৌর মেয়র রিয়াজুল ইসলাম জোয়ার্দ্দার টোটন। এছাড়া আরও বক্তব্য রাখেন জাতীয় শ্রমিকলীগের চুয়াডাঙ্গা জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক রিপন ম-ল। এসময় উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মুন্সি আলমগীর হান্নান, পৌর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আলা উদ্দিন হেলা, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মোহাইমেন হাসান জোয়ার্দ্দার অনিক, পৌর মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শাফিয়া শাহাব। অন্যানের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জেলা শ্রমিকলীগের সহসভাপতি ইউনুস খান রাজু, হাবিবুর রহমান, আব্দুস ছালাম, আবুল কালাম আজাদ, বিরাট কুমার বিশ্বাস, আব্দুল মাজেদ, সহসাধারণ সম্পাদক শেখ আরিফ হোসেন, রবিন কুমার, দফতর সম্পাদক সোহেল জোয়ার্দ্দার, মহিলা সম্পাদিকা পারভীন আক্তার, মহিলা সহসম্পাদিকা মাজেদা খাতুন, সদর উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক মামুন অর রশিদ, পৌর শাখার সাধারণ সম্পাদক শেখ শফিকুল ইসলাম, রেলওয়ে শ্রমিকলীগের সভাপতি আব্দুল গফুর, সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম, ট্রাক ও ট্যাঙ্কলরি শাখার সভাপতি টোকন মিস্ত্রি, সাধারণ সম্পাদক মামুন অর রশিদ মামুন, মাইক্রোবাস কার শাখার সাধারণ সম্পাদক মিন্টু জমিদার, পিডিবি শাখার সম্পাদক নজরুল ইসলাম কেতু, বিএডিসি শ্রমিক নেতা মোমিন, ইজিবাইক সোসাইটির সভাপতি মুনতাজ হোসেন, সম্পাদক সাজু, ডিঙ্গেদহ শাখা কার্যালয়ের সভাপতি আব্দুল হান্নানসহ বিভিন্ন ইউনিটের নেতাকর্মীবৃন্দ। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালন করেন জেলা শ্রমিকলীগের সিনিয়র সহসভাপতি ইসলাম উদ্দিন। সমাবেশ শেষে দলীয় কার্যালয়ে কেক কাটা হয়।
মেহেরপুর অফিস জানিয়েছে, মেহেরপুরে জাতীয় শ্রমিকলীগের ৫০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনাসভা ও র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় বাসস্ট্যান্ড এলাকায় সদর উপজেলা ও শহর শ্রমিকলীগ এ অনষ্ঠানের আয়োজন করে। আলোচনাসভায় সভাপতিত্ব করেন সদর শ্রমিকলীগের সভাপতি সাজেদুর রহমান সাজু। প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও জেলা শ্রমিকলীগের সদস্য ও জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মতিয়ার রহমান। বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি অনন্ত সাহা, জেলা শ্রমিকলীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য সাইদুর রহমান, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পবির কুমার অধিকারী প্রমূখ। সদর উপজেলা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল হকের সঞ্চালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন সদর উপজেলা শ্রমিকলীগের সহসভাপতি ইয়ারুল ইসলাম, শহর শ্রমিকলীগের সভাপতি ফারুক হোসেন, সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ বকুল, যুগ্ম সম্পাদক মাসুদ রানা, বারাদী শ্রমিকলীগের সভাপতি আলতাব হোসেন, জেলা ইমারত শ্রমিক ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি আবুল হোসেন, শ্রমিক কর্মচারী পেশাজীবী পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক সৈয়দ সোহেল রানা প্রমুখ। আলোচনাসভা শেষে বাসস্ট্যান্ড থেকে একটি র‌্যালি বের হয়। র‌্যালিটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে একই স্থানে গিয়ে শেষ হয়। এসময় সকল শ্রমিকলীগের সদস্যরা র‌্যালিতে অংশ নেন।