চুয়াডাঙ্গায় বঙ্গমাতা জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের পুরস্কার বিতরণ

0
257

স্টাফ রিপোর্টার: জাতিরপিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেচ্ছা মুজিব জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল অনূর্ধ্ব-১৭, ২০১৯ এর বালক-বালিকা বিভাগের ফাইনাল খেলার পুরস্কার বিতরণ সম্পন্ন হয়েছে। গতকাল শুক্রবার চুয়াডাঙ্গা পুরাতন স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত বালিকা ফাইনালে দামুড়হুদা উপজেলা বালিকা দল ২-০ গোলে আলমডাঙ্গা উপজেলা বালিকা দলকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করে। চ্যাম্পিয়ন দলের পক্ষে গোল করে ফাগুন ও বেবী। এছাড়া টুর্নামেন্ট সেরা নির্বাচিত হয় রানারআপ দলের অধিনায়ক বিদিশা, ম্যান অব দ্য ফাইনাল ফাগুন ও সর্বোচ্চ গোলদাতার পুরস্কার লাভ করে চ্যাম্পিয়ন দলের দল নায়ক বেবী। গতকাল শুক্রবার দুপুর ১২টায় প্রতিযোগিতার ফাইনাল শেষে চ্যাম্পিয়ন-রানারআপ দলের হাতে পুরস্কার তুলে দেন চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) ইয়াহ্ ইয়া খান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) খোন্দকার ফরহাদ আহমদ, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মনিরা পারভীন, দামুড়হুদা উপজেলা নির্বাহী অফিসার এসএম মুনিম লিংকন, এনডিসি সিব্বির আহম্মেদ, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট খাইরুল ইসলাম, জেলা ক্রীড়া অফিসার আমানুল্লাহ আহাম্মেদ প্রমুখ।
দামুড়হুদা উপজেলা দলের কোচ ছিলেন শিপন ও ওমর ফারুক এবং ম্যানেজার ছিলেন এম নুরুন্নবী। গতকাল বিকেল ৫টায় চুয়াডাঙ্গা জেলা পর্যায়ের জাতিরপিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের বালক বিভাগের ফাইনাল খেলার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত হয়। বালক বিভাগে চুয়াডাঙ্গা পৌরসভা ২-০ গোলে দামুড়হুদা উপজেলা দলকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করে। পৌরসভার পক্ষে গোল ২টি করে সাকিব ও পুলক। চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করায় চুয়াডাঙ্গা পৌরসভার মেয়র ওবায়দুর রহমান চৌধুরী জিপু সকল খেলোয়াড়-কর্মকর্তাদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন। দলের কোচ ছিলেন মিলন বিশ্বাস ও ম্যানেজার ছিলেন ডা. আফছার উদ্দিন কলেজের অধ্যক্ষ মাহাবুবুল ইসলাম সেলিম। বালক বিভাগে ম্যান অব দ্য টুর্নামেন্ট নির্বাচিত হয় রানারআপ দামুড়হুদা দলের দলনায়ক মিঠু, ম্যান অব দ্য ফাইনাল চ্যাম্পিয়ন দলের সাকিব ও সর্বোচ্চ গোলদাতার পুরস্কার লাভ করে একই দলের পুলক। বালকদের খেলা শেষে সন্ধ্যায় চ্যাম্পিয়ন রানারআপ দলের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করা হয়। এ পর্বেও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার। বিশেষ অতিথি ছিলেন চুয়াডাঙ্গা পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম, চুয়াডাঙ্গা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সামসুল আবেদীন খোকন ও চুয়াডাঙ্গা পৌর মেয়র ওবায়দুর রহমান চৌধুরী জিপু। প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার চ্যাম্পিয়ন ও রানারআপ দলকে অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও মাদক থেকে আদর্শ যুব সমাজ গড়ে তুলতে সুস্থ ধারার খেলার বিকল্প নেই। চুয়াডাঙ্গার ৫টি বালক টিম ও ৫টি বালিকা টিম থেকে বাছাইকৃত খেলোয়াড়দের নিয়ে (বালক-বালিকা) ২টি টিম গঠন করা হবে। এ দুটি টিম খুলনা বিভাগে গিয়ে চুয়াডাঙ্গার জেলা প্রতিনিধিত্ব করবে। আমরা সবাই চাইবো চুয়াডাঙ্গার ২টি টিমই যেন ভালো ফলাফল বয়ে নিয়ে আসতে পারে।’
পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন দামুড়হুদা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এসএম মুনিম লিংকন, দামুড়হুদা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলি মুনছুর বাবু, চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসনের এনডিসি সিব্বির আহম্মেদ, জেলা আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার সম্পাদক শওকত আলী বিশ্বাস, ডিএফএ’র সভাপতি রফিকুল ইসলাম, পৌরসভার প্যানেল মেয়র মুন্সী খোকন, জেলা পরিষদের সদস্য নুরুন্নাহার কাকুলীসহ চুয়াডাঙ্গা জেলা ক্রীড়া সংস্থা, মহিলা ক্রীড়া সংস্থা ও চুয়াডাঙ্গা ডিএফএ’র নির্বাহী কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন। পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) ইয়াহ ইয়া খান। গতকালের ফাইনাল ম্যাচ ২টি পরিচালনা করেন রবিউল ইসলাম রবি, মাসুদুর রহমান খোকন, রেজাউল হক রেজা, লিটা হোসেন, রিয়ান আহম্মেদ এবং ম্যাচ কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন কৃতি ফুটবলার মাহমুদুল হক লিটন ও জেলা মহিলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক সেলিনা খাতুন।