চুয়াডাঙ্গায় ওষুধ ব্যবসায়ীদের সাথে মতবিনিময়সভায় জেলা প্রশাসক

0
13

সরকারের আইন মেনে ব্যবসা করতে হবে
স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসন ও ওষুধ ব্যবসায়ীদের সাথে এক মতবিনিময়সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বুধবার বেলা ১২টায় জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে এ মতবিনিময়সভা অনুষ্ঠিত হয়।
জেলা প্রশাসক জিয়াউদ্দীন আহমেদের সভাপতিত্বে সভায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) তরিকুল ইসলাম, সিভিল সার্জন ডা. খায়রুল আলম, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট খোন্দকার ফরহাদ আহমদ, কনসালটেন্ট ডা. পরিতোষ কুমার ঘোষ, সদর হাসপাতালের আরএমও ডা. শামিম কবির, ড্রাগ সুপার সুকর্ণ আহমেদ, সহকারী কমিশনার সচিত্র রঞ্জন, প্যানেল মেয়র একরামুল হক মুক্তা, চেম্বার সভাপতি ইয়াকুব হোসেন মালিক, ফারিয়ার প্রতিনিধি আমিনুল ইসলাম মুকুল, ডা. হারুন অর রশিদ পলাশ, আব্দুল মজিদ জিল্লু ও আসাদুর রহমানসহ ওষুধ ব্যবসায়ীরা উপস্থিত ছিলেন।
সভায় জেলা প্রশাসক জিয়াউদ্দীন আহমেদ ওষুধ ব্যবসায়ীদের উদ্দেশে বলেন, সরকারের আইন মেনে ওষুধ ব্যবসা করতে হবে। সরকারি নির্দেশ মেনে মোবাইল কোর্ট চলবে। দোকানে মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ রাখা যাবে না। এমআরপি না থাকলে বিক্রি করা যাবে না। ওষুধের মোড়কে তারিখ থাকতে হবে এবং ক্যাশ মেমো দিতে হবে। ভ্রাম্যমাণ আদালত যে ওষুধ জব্দ করেছিলো তার মধ্যে ২০১২ সালের ওষুধও পাওয়া গেছে। মেয়াদোর্ত্তীর্ণ ওষুধ মানে বিষ। ওই বিষ খেলে মানুষ মারা যেতে পারে। ড্রাগ সুপারের বিরুদ্ধে অভিযোগ থাকলে লিখিতভাবে জানাতেন। ড্রাগ সুপার সুকর্ণ আহমেদ বলেন, সদর উপজেলায় ৪৬২টি ফার্মেসীর লাইসেন্স রয়েছে। এরমধ্যে ২শ’ মেয়াদোত্তীর্ণ। অনেকে দীর্ঘ কয়েকবছর যাবত লাইসেন্স নবায়ণ করেননি।
সদর উপজেলা ওষুধ ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আব্দুল মজিদ জিল্লু জানান, জেলা প্রশাসক আগামী ১৫ দিনের মধ্যে ব্যবসায়ীদের মধ্যে শুদ্ধি অভিযান পরিচালনা করতে বলেছেন। নিয়ম মেনে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হবে।