চুয়াডাঙ্গার তিতুদহে দু’পক্ষের সংঘর্ষ উভয়’পক্ষের আহত ৯

0

বেগমপুর প্রতিনিধি: চুয়াডাঙ্গা সদর তিতুদহে বাড়ির সামনের রাস্তায় মাটি ফেলা নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে তিতুদহ ইউনিয়ন আ.লীগের সাবেক সভাপতিসহ উভয়পক্ষের ৯জন আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে দুজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসাপাতালে রেফার্ড করা হয়েছে। এ ঘটনায় তিতুদহ ক্যাম্প পুলিশ ৩ জনকে আটক করেছে। ঘটনার পর থেকে উভয়পক্ষের মধ্যে চাপা উত্তেজনা বিরাজ করছে। এ ঘটনায় উভয়পক্ষ পাল্টাপাল্টি মামলা দায়ের করেছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।
জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার তিতুদহ ইউনিয়নের হুলিয়ামারী গ্রামের বাহার আলী বিশ^াসের ছেলে সাইদুর রহমান বিশ^াস গতকাল মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে বাড়ির সামনের রাস্তায় মাটি ফেলছিলেন। এসময় প্রতিবেশী মৃত বিশু বিশ^াসের ছেলে তিতুদহ ইউনিয়ন আ.লীগের সাবেক সভাপতি খবির উদ্দিন বিশ^াস বাঁধা সৃষ্টি করেন। এ নিয়ে উভয়ের মধ্যে বাগবিত-া শুরু হয়। একপর্যায় উভয়পক্ষ লাঠিসোঁটা নিয়ে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এতে সাইদুর রহমানের পক্ষের সাইদুর রহমান (৪৫), ভাই নুরুল ইসলাম বিশ^াস (৪২), মৃত মহর আলী বিশ^াসের ছেলে লাল্টু রহমান (৫৫), লাল্টুর ছেলে রাজু আহম্মদ (২৭) ও দবির আলীর ছেলে জান্নাত আলী (৩৫) আহত হন। অপরদিকে খবির উদ্দিন বিশ^াস (৭০), ছেলে আকিদুল (৫০), হামিদুল (৫২) ও মিজানুর রহমান (৪৭) আহত হন। আহতদের উদ্ধার করে নেয়া হয় চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে। আহতদের মধ্যে সাইদুর ও লাল্টুর অবস্থা আশঙ্কজনক হওয়ায় তাদেরকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়েছে বলে জানা গেছে। ঘটনার পরপরই তিতুদহ ক্যাম্প পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে সাইদুর রহমানের ছেলে ইমরান আলী (২২), নুর আলীর ছেলে আছাদ আলী (২৮) ও পিন্টু মিয়ার ছেলে রানা মিয়াকে (২০) আটক করেছে। আটককৃতদের চুয়াডাঙ্গা সদর থানায় সোপর্দ করেছে পুলিশ। তিতুদহ ক্যাম্প পুলিশের ইনচার্জ এসআই আমিরুল ইসলাম বলেন, বাড়ির রাস্তার জমি নিয়ে উভয়পক্ষের মধ্যে দীর্ঘদিন থেকে বিরোধ চলে আসছে। এ মাটিফেলা নিয়ে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। খবির উদ্দিন বিশ^াসের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, রাস্তার জমি আমাদের। তা দখল করার জন্য সাইদুর পূর্বপরিকল্পিতভাবে মাটি ভরাট করে দখল নিতে চেয়েছে এবং আমাদের ওপর হামলা চালিয়েছে। অপরদিকে সাইদুরের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে নিজের জমিতে মাটি ফেলতে গেলে প্রভাবশালী খবির উদ্দিন বিশ^াস তার লোকবল নিয়ে এসে আমাদের ওপর হামলা চালিয়েছে। আহত সকলেই রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়েছে। তিতুদহ ইউনিয়ন আ.লীগের সভাপতি শুকুর আলী মিয়া বলেন, দীর্ঘ ২৫ বছর ধরে বাড়ির রাস্তার ওই জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। খবির উদ্দিন পায়ে হাটার ওই রাস্তার জন্য মোটা অংকের টাকা দাবি করছে। চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত ইন্সপেক্টর আবু জিহাদ ফখরুল আলমখান বলেন, সাইদুরের পক্ষে আরিফুল ইসলাম বাদী হয়ে ১০ জনকে আসামি করে মামলা করেছেন। অপরদিকে খবির উদ্দিন বিশ^াসের পক্ষে মিজানুর রহমান বাদী হয়ে ১০ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেছে। ঘটনার পর থেকে উভয়পক্ষের মধ্যে চাপা উত্তেজনা বিরাজ করছে বলে জানা গেছে।

Loading Facebook Comments ...

প্রত্যুত্তর দিন

অনুগ্রহ করে আপনার মন্তব্য লিখুন!
অনুগ্রহ করে আপনার নাম লিখুন