আলমডাঙ্গার ছত্রপাড়ায় বাল্যবিয়ের আয়োজন : ভ্রাম্যমাণ আদালতে জরিমানা

0
212

আলমডাঙ্গা ব্যুরো: চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলার ছত্রপাড়া গ্রামে বাল্যবিয়ে পড়ানোর প্রস্তুতিকালে কাজির ভাতিজাকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন। গত দিনগত গভীররাতে ওই বিয়ের অনুষ্ঠানে উপজেলা নির্বাহী অফিসার লিটন আলী উপস্থিত হয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে ওই জরিমানা করেন। সে সময় কনের মা-বাপসহ কাজি বাড়ি পালিয়ে যায়।
জানা গেছে, ছত্রপাড়া গ্রামের শাহজাহান আলীর স্কুলপড়–য়া মেয়ে রিনা খাতুনের বিয়ের দিনধার্য হয় গত ২৩ সেপ্টেম্বরের। গভীররাতে ওই বিয়ের আয়োজন করা হয়। বিয়ে পড়ানোর জন্য কাজিও উপস্থিত হন। বিষয়টি জানার পর আলমডাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার লিটন আলী রাত ১২টার দিকে ঘটনাস্থলে পৌঁছেন। সংবাদ পেয়ে হাজির হয় জামজামি ক্যাম্প পুলিশ।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, সে সময় বিয়ের কনেসহ কনের মা-বাপ ও কাজি (নিকাহ রেজিস্ট্রার) পালিয়ে যায়। তবে ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন বাল্যবিয়ে কাজি নামখ্যাত জহুরুল ইসলামের সহকারী তারই ভাতিজা তারিকুল ইসলাম (২২)। তারিকুল ইসলাম অভয়নগর গ্রামের মৃত জিয়াউর রহমানের ছেলে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে কাজির ভাতিজা তারিকুল ইসলামকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ৫ দিনের কারাদ-াদেশ প্রদান করেন। একই সময় পুলিশকে নির্দেশ দেন বাল্যবিয়ে খ্যাত কাজি জহুরুল ইসলামকে গ্রেফতারের। এ সময় উপস্থিত ছিলেন জামজামি ক্যাম্প পুলিশের ইনচার্জ আব্দুল হাকিম সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে উপস্থিত ছিলেন।