আবদার করে পাওয়া মোটরসাইকেল চালাতে বাধা দেয়ায় মায়ের ওপর অভিমানি স্কুলপড়ুয়ার বিষপানে আত্মহত্যা

0
325

স্টাফ রিপোর্টার: মেহেরপুর দরবেশপুর গাবতলাপাড়ার সৌদি প্রবাসীর ছেলে স্কুলপড়–য়া মুন্না হোসেনকে শেষ পর্যন্ত বাঁচানো যায়নি। সে তার মায়ের ওপর অভিমান করে গত শুক্রবার বিষপান করে। ঢাকা মেডিকেলে চিকিৎসধীন অবস্থায় গতকাল বৃহস্পতিবার ভোরে মারা যায়। গতরাতে তার নিজ গ্রামে দাফন কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে।
স্থানীয়রা জানিয়েছেন, দরবেশপুর গাবতলাপাড়ার রফিকুল আমিন দীর্ঘদিন ধরে সৌদি প্রবাসী। তার ছেলে মুন্না হোসেন বারাদী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ছাত্র। আসন্ন এসএসসি পরীক্ষায় তার অংশ নেয়ার কথা। প্রবাসী পিতার নিকট আবদার করে মুন্না একটি মোটরসাইকেল কিনেছে। বছরখানেক আগে ওই মোটরসাইকেল নিয়ে দুর্ঘটনায় হারায় মুখের দাঁত। এরপর থেকেই মা তার মোটরসাইকেল চালানোতে বাধা হয়ে দাঁড়ায়। এসএসসি পরীক্ষা সামনে। পরীক্ষার আগে আর মোটরসাইকেল চালানো যাবে না বলে জানালে মুন্না তার মায়ের ওপর অভিমানি হয়ে ওঠে। এ কারণেই ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে লেখে বিষপান করে। গত শুক্রবার বিষপান করলে তাকে প্রথমে নেয়া হয় মেহেরপুর সদর হাসপাতালে। এরপর নেয়া হয় চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে। অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পরামর্শ দেন কর্তব্যরত চিকিৎসক। রাজশাহী নেয়া হয়। সেখান থেকে নেয়া হয় ঢাকায়। শেষ পর্যন্ত তাকে বাঁচিয়ে রাখা যায়নি। গতকাল ভোরে সে মারা যায়। লাশ নেয়া হয় নিজ গ্রামে।