মেদিনীপুরের ইমরান ও যাদবপুরের জীবন ফেনসিডিলসহ আটক

0

মহেশপুর-৫৮ বিজিবির জীবননগর ও মহেশপুরে অভিযান

জীবননগর ব্যুরো: জীবনগর উপজেলার মেদিনীপুর ও মহেশপুর যাদবপুর বিওপির বিজিবি জওয়ানরা মাদকবিরোধী অভিযান চালিয়ে বিপুল সংখ্যক ফেনসিডিল উদ্ধার করেছে। এসময় দু’জন মাদককারবারীকে আটক করা হয়েছে। পালিয়ে গেছে ৯ মাদক কারবারী। তাদেরকে মামলায় পলাতক আসামি করা হয়েছে। গত দু দিনে বিজিবি এ অভিযান পরিচালনা করে।
মহেশপুর-৫৮ ব্যাটলিয়ন সূত্রে জানা যায়, গত মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১০ টার দিকে জীবননগর উপজেলার মেদিনীপুর বিওপির টহলদল মেদিনীপুর আমবাগানের মধ্য হতে মাদক চোরাকারবারী ইমরান আলীকে (১৮) ২৪ বোতল ফেনসিডিলসহ আটক করা হয়। সে মেদিনীপুর গ্রামের জাকির হোসেনের ছেলে। তাকে মামলাসহ গতকাল বুধবার জীবননগর থানায় সোপর্দ করা হয়। এ সময় একই গ্রামের বাক্কা মিয়ার ছেলে হামিদুর রহমান (১৯) পালিয়ে যায়। মামলায় তাকে পলাতক আসামি করা হয়েছে।
একই দিন মেদিনীপুর বিওপির টহলদল হরিহরনগর গ্রামের আমবাগানের মধ্যে হতে মালিকবিহীন অবস্থায় ৩৮ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় হরিহরনগর গ্রামের রবগুল বিশ^াসের দু ছেলে মাদককারবারী সোহেল বিশ^াস (৩০) ও মাসুদ বিশ^াসকে (২৮) পলাতক আসামি করে জীবননগর থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়। গতকাল বুধবার মহেশপুর উপজেলার যাদবপুর বিওপির টহলদল মহেশপুর উপজেলার গোপালপুর মাঠের মধ্য হতে মাদক চোরাকারবারী ইসমাইল জীবনকে (১৯) ১০৪ বোতল ফেনসিডিলসহ আটক করা হয়। আটক জীবন যাদবপুর গ্রামের জাকির হোসেনের ছেলে। এ ঘটনায় যাদবপুর গ্রামের লিটনের ছেলে রাকিব (২৫), মৃত আব্দুল আজিজের ছেলে পানছা (২৫), মৃত আবুল কাশেমের ছেলে নরুল (২২), বেতবাড়িয়া গ্রামের বদরউদ্দিনের ছেলে সাধন (৩৫), আক্কাছ আলীর ছেলে আলম (২৭) ও পারগোপালপুর গ্রামের আয়ুব আলীর ছেলে আব্দুর রহিমকে পলাতক আসামি হিসেবে থানায় মামলায় উল্লেখ করেছে বিজিবি। এছাড়াও জীবননগর উপজেলার মেদেনীপুর আম বাগানের মধ্যে হতে মালিকবিহীন অবস্থায় ২৩ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করা হয়েছে।
ঝিনাইদহের মহেশপুর-৫৮ বিজিবি ব্যাটালিয়নের সহকারী পরিচালক নজরুল ইসলাম খান ফেনসিডিলসহ ২ জন মাদককারবারী আটক ও মামলায় ৯ জনকে পলাতক আসামি করার সংবাদ সাংবাদিকদের নিশ্চিত করেছেন।

Loading Facebook Comments ...

প্রত্যুত্তর দিন

অনুগ্রহ করে আপনার মন্তব্য লিখুন!
অনুগ্রহ করে আপনার নাম লিখুন